উন্মুক্ত হল স্যামসাং Galaxy Tab S4: থাকছে ডলবি এ্যাটমস ৩ডি সাউন্ড

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaগেজেট রিভিউউন্মুক্ত হল স্যামসাং Galaxy Tab S4: থাকছে ডলবি এ্যাটমস ৩ডি সাউন্ড

ডেক্সটপ কার্যকারিতা ও পারফরমেন্সকে ট্যাবলেটে নিয়ে আনার প্রত্যয় নিয়ে এক বছর আগে স্যামসাং এর গ্যালাক্সি এস৩ ব্যবহারকারীদের জন্য বাজারে এনেছিল। কিন্তু, ডেক্সটপের বিকল্প হিসাবে সার্বিকভাবে ব্যবহারকারীদের মন জয় করতে ব্যর্থ হয় গ্যালাক্সি এস৩।

কিন্তু, এবার সেই ব্যর্থতাকে দূরে ঠেলে স্যামসাং ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করেছে গ্যালাক্সি এস৪।

গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এ ডেক্স ইন্টিগ্রেশান থাকায় এই ট্যাবলেটে ডেস্কটপের মতো অভিজ্ঞতা পাওয়া যাবে। টপ এন্ড এই ট্যাবলেটে ডলবি অ্যাটমস সাউন্ড সহ ব্যবহার হয়েছে একেজি টিউনড স্পিকার।

 

গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এর স্পেসিফিকেশন

  • গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ সর্বশেষ অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম চলবে। এই ট্যাবে থাকবে একটি ১০ দশমিক ৫ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের অ্যাসপেক্ট রেশিও ১৬:১০।
  • স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এ অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ চিপসেট ব্যবহার হয়েছে। এর সাথেই থাকবে ৪জিবি র‍্যাম আর ৬৪জিবি/২৫৬জিবি স্টোরেজ।
  • গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এর পিছনে একটি ১৩ মেগাপিক্সেল আর সামনে একটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার হয়েছে।
    বড় ডিসপ্লে’র সাথে এই ট্যাবে রয়েছে ৭,৩০০ এমএএইচ ব্যাটারী। এই ব্যাটারী থেকে ট্যাবের জন্য পাওয়া ১৬ ঘণ্টা নিরবিচ্ছিন্ন পাওয়ার সাপ্লাই।

 

কালো এবং গ্রে কালারের গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এ ওয়াই-ফাই ও ৪জি সাপোর্টেড এর দু’টি ভিন্ন ভিন্ন কানেকিটিভিটি ভার্সন রয়েছে। ওয়াই-ফাই ভার্সসের মূল্য দাঁড়াবে ৫৯৯ ডলার এবং ৪জি ভার্সনের মূল্য ৬৪৯ ডলার।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৬৪ জিবি গ্যালাক্সি ট্যাব এস৪ এর দাম ৬৫০ মার্কিন ডলার এবং ২৫৬ জিবি ভেরিয়েন্টের দাম ৭৫০ মার্কিন ডলার। তবে গ্যালাক্সি ট্যাব এ ১০.৫ এর দাম ও কবে থেকে তা পাওয়া যাবে তা জানায়নি স্যামসাং।

গ্রাহককে ডেস্কটপের মতো অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য এই ট্যাবলেটের সাথে ডেক্স (DeX) সাপোর্ট রাখা হয়েছে। এর মাধ্যমে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপগুলিকে ডেস্কটপের মতো ব্যবহার করা যাবে। একটি অ্যাপ থেকে অন্য অ্যাপে ড্র্যাগ করে ড্রপ করা বা কি-বোর্ড শর্টকাটের মতো ফিচার যোগ করে হয়েছে এই ট্যাবলেটে।

কিছু কিছু এ্যাপ ডিজাইনারের বিশেষভাবে DeX এর জন্য অপটিমাইজড এ্যাপ নির্মাণ করে দিয়েছেনে, যেমন, মাইক্রোসফটের অফিস সুইট, ট্রিপএ্যাডভাইজার, দ্য নিউইয়র্ক টাইমস এবং ডিজার।

প্রথম দিকে এ্যাপগুলোকে এস৪ এর সাথে ব্যবহারের সময় ব্যবহারকারীদের মনে হতে পারে যে, এ্যাপগুলো হয়তো জোর করে ট্যাবের সাথে গছিয়ে দেয়া হয়েছে, তবে ট্যাব কেনার পরে ব্যবহারকারীদের কম্পাটিবল এ্যাপ এর খুব বেশি খোঁজা-খুঁজি করতে হবে না।

DeX এ রয়েছে ‘ডুয়াল মুড’। এই মুডে ব্যবহারকারীগণ ডিসপ্লেতে দুইটা-ভিউতে এ্যাপ চালাতে পারবেন। এক ভিউতে হয়তো একটি ভিডিও দেখতে-দেখতে, অন্য ভিউতে প্রেজেন্টেশনের নোটগুলো পড়ছেন। স্যামসাং এর ব্লু-টুথ কানেকটেড মাউস ও কিবোর্ড এর মাধ্যমে এই ট্যাবকে ল্যাপটপের মত করে ব্যবহার করা যায়।

বরাবরের মতই এস৪ এ এস-পেন যুক্ত রয়েছে। এটি হাতে ধরতে ব্যবহকারীগণ খুবই সাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন। এটি অত্যন্ত হালকা এবং এর টিপ-সেন্সরটি বেশ সেনসিটিভি। এস-পেন ব্যবহারের জন্য ট্যাবে কিছু প্রি-লোডেড এ্যাপ দিয়ে দেয়া হয়েছে।

স্যামসাংয়ের ট্যাব এস৪ এ্যাপলের iPad Pro কে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফেলবে; ঠিক যেমন একে আবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে অপেক্ষাকৃত কম বাজেটের ক্রোম ওএস ট্যাবলেটের সাথে। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আরও রয়েছে মাইক্রোসফটের সারফেস গো, যাকে স্যামসাংয়ের এস৪ এর সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বি ধরা হচ্ছে।

স্যামসাং এস৪কে বাজারের অন্যান্য টেক জায়ান্টদের সাথে শক্ত প্রতিযোগিতা করে মার্কেট শেয়ার ধরে রাখতে হবে। এটি একটি শক্ত প্রতিযোগিতা। ট্যাব এস৪ নিয়ে স্যামসাং এই প্রতিযোগিতায় কত দূর যেতে পারে, সেটাই দেখার বিষয়।

 

উন্মুক্ত হল স্যামসাং Galaxy Tab S4: থাকছে ডলবি এ্যাটমস ৩ডি সাউন্ড

 

অফিসিয়াল ভিডিও

 

আরও পড়ুন:

ক্যাটাগরিঃ গেজেট রিভিউ
ট্যাগঃ