ফেসবুকের ইন্টারনেট ড্রোন প্রকল্প, এ্যাকুইলা, বাতিল ঘোষণা

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিফেসবুকের ইন্টারনেট ড্রোন প্রকল্প, এ্যাকুইলা, বাতিল ঘোষণা
Advertisements

চার বছর আগে পৃথিবীর প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে ইন্টারনেট সংযোগ নেই, সেখানে ড্রোন-নেটওয়ার্ক দিয়ে ইন্টারনেট সংযোগ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গ। তিনি এই প্রকল্পের নাম দিয়েছিলেন এ্যাকুইলা (Aquila)। গত বুধবার এক ঘোষণার মধ্য দিয়ে এই ইন্টারনেট ড্রোন প্রকল্প বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে ফেইসবুক

২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠান প্রধান মার্ক জাকারবার্গ বলেছিলেন, “এ ধরনের উডুক্কুযানগুলো পুরো বিশ্বকে সংযুক্ত করতে সহায়ক হতে পারে কারণ, এগুলো বৈশ্বিক জনসংখ্যার ১০ শতাংশ মানুষ প্রত্যন্ত অঞ্চল যেখানে ইন্টারনেট কাঠামো নেই সেখানে যারা বসবাস করেন তাদেরকে সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সেবা দিতে পারে।”

ওই বছরই অ্যাকুইলা ড্রোনের প্রথম পরীক্ষামূলক ফ্লাইট পরিচালনা করে ফেইসবুক। প্রথম ফ্লাইটের পরই মরুভূমিতে বিধ্বস্ত হয় সৌরচালিত ড্রোনটি। দ্বিতীয় পরীক্ষায় সফল হয় এটি।

এই প্রকল্পে প্রচুর বিনিয়োগ করেছিল ফেইসবুক। ২০১৬ তে প্রথম সফল উড্ডয়নের পর জাকারবার্গ উচ্ছস্বিত স্বরে বলেছিলেন, তারা এমন কিছু করেছেন, যা কখনও কেউ করতে পারেনি।

কিন্তু, প্রজেক্ট এ্যাকুইলা চালুর পরপরই বেশ কিছু ঝামেলা পড়ে। প্রথম উড্ডয়নে ড্রোনটি ক্রাশ ল্যান্ড করে পাখা ভেঙ্গে যায়। ফেসবুকের ইন্টারনেট.অর্গ এর অধিনস্ত কোম্পানীর অধীনে ছিল এই প্রকল্প। চালুর পরপরই এই প্রকল্ট নেতিবাচক বিতর্কিত হয়ে পড়ে।

প্রযুক্তি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ফেসবুক এই প্রকল্পকে মহান প্রচেষ্টা আকারে তুলে ধরার চেষ্টা করলেও এটি আসলে কোম্পানীর ব্যবসা সম্প্রসারণের বাণিজ্যিক প্রচেষ্টা ছাড়া আর কিছুই না।

ফেসবুক গত বুধবার জানিয়েছে, আরও কোম্পানী ড্রোনের উন্নততর প্রাযুক্তিক ব্যবহারে এগিয়ে আসায় তারা এই প্রকল্পকে আর এগিয়ে নিতে চায় না। এক ব্লগ পোস্টে ফেসবুকের ইঞ্জিনিয়ার ইয়েল ম্যাগেুইর জানিয়েছেন ফেসবুক আর ড্রোন তৈরী করবে না।

তবে, সর্বসাধারণের দোরগোড়ায় ইন্টারনেটকে পৌঁছে দেয়ার মূলনীতিতে তার কোম্পানীর প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এর জন্য তারা এয়ারক্রাফট তৈরী কাজে তৃতীয় পক্ষকে নিয়োজিত করবে।

[adinserter block=”1″]

এর ঘোষণার মধ্য দিয়ে ইংল্যান্ডের পশ্চিমাঞ্চলের নির্মিত প্ল্যান্টটি বন্ধ করে দেয়া হবে।

ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের পরিকল্পনার মধ্যে ছিলেন সৌরশক্তিচালিত ড্রোন নির্মাণ করা যেগুলো ৬০ হাজার ফিট উপর দিয়ে টানা এক মাস চলতে সক্ষম হবে।

ড্রোনগুলো হবে পিয়ানোর থেকেও হালকা ওজনের অথচ এর পাখাগুলো বোয়িং ৭৩৭ এর চেয়েও লম্বা।

সস্তায় বা বিনামূল্যে ইন্টারনেটকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে ড্রোন বা এয়ারক্রাফট তৈরী দৌঁড়ে ফেসবুক ছাড়াও কাজ করছিল গুগলও। গুগল তাদের এই পরিকল্পনাও বাতিল করেছে।

এর পরিবর্তে তারা অনেক উঁচুতে উড়তে সক্ষম বেলুনতে হাত দিয়েছে। “লুন” (Loon) নামের এই প্রকল্প দিয়ে গুগল তাদের ইন্টারনেট ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনাকে এগিয়ে যেতে যায়।

এ্যাকুইলা নিয়ে বিস্তারিত জানতে মার্ক জাকারবার্গের লেখা প্রবন্ধটি একটি ভাল সূত্র।

এ্যাকুইলা ড্রোনের দ্বিমাত্রিক চিত্র ও তথ্য

সূত্র: এনওয়াইটাইমস

আরও আছে: