গলায় মাছের কাটা বিঁধলে করণীয়: জরুরী অবস্থায় ডাক্তার দেখান

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaটিপস ও ট্রিক্সগলায় মাছের কাটা বিঁধলে করণীয়: জরুরী অবস্থায় ডাক্তার দেখান

অধিকাংশ মানুষই মাছ খেতে ভালবাসে। কিন্তু অনেক সময় তাড়াহুড়ো করে খেতে গিয়ে মাছের কাটা গলায় বিঁধে যায় কারও কারও। কখনো গলায় মাছের কাটা বিঁধলে ৫টি ঘরোয়া উপায় অনুসরণ করুন, সহজেই সমাধান হয়ে যাবে আপনার সমস্যা।

১. গলায় কাঁটা বিঁধলে উষ্ণ পানিতে সামান্য পাতিলেবুর রস মিশিয়ে ওই মিশ্রণ খান। পাতিলেবুর রসের অ্যাসিডিক ক্ষমতা কাঁটাকে নরম করে দেবে। ফলে গলায় বিঁধে থাকা কাঁটা সহজেই নরম হয়ে নেমে যাবে গলা থেকে।
২. লবণ কাঁটা নরম করতে অত্যন্ত কার্যকর। তবে শুধু লবণ না খেয়ে এক কাপ উষ্ণ পানিতে সামান্য লবণ মেশিয়ে নিন। এই উষ্ণ লবণ-পানি খেলে গলায় বিঁধে থাকা মাছের কাঁটা সহজেই গলা থেকে নেমে যাবে।

৩. গলায় কাঁটা বিঁধলে দেরি না করে সামান্য অলিভ অয়েল খেয়ে নিন। অলিভ অয়েল অন্য তেলের তুলনায় একটু বেশিই পিচ্ছিল। ফলে অলিভ অয়েল খেলে গলায় বিঁধে থাকা কাঁটা পিছলে সহজেই নেমে যাবে।

৪. গলায় কাঁটা বিঁধলে এক কাপ পানির সঙ্গে ২ চামচ ভিনিগার মিশিয়ে খেয়ে নিন। ভিনেগার গলায় বিঁধে থাকা মাছের কাঁটাকে নরম করতে সক্ষম। তাই পানির সঙ্গে ভিনেগার মিশিয়ে খেলে গলায় বিঁধে থাকা কাঁটা সহজেই নরম হয়ে নেমে যাবে।

৫. গলায় কাঁটা বিঁধলে খানিকটা ভাত বা পাউরুটি চটকে ছোট ছোট মণ্ড করে নিন। এবার একবারে গিলে ফেলুন। ভাত বা পাউরুটির মণ্ডের ধাক্কায় গলায় বিঁধে থাকা কাঁটা সহজেই নেমে যাবে।

তাড়াহুড়ো করে খেতে গিয়ে মাছের কাটা গলায় আটকে যেতে পারে। গলায় মাছের কাটা বিঁধলে ৫টি ঘরোয়া উপায় অনুসরণ করুন। জরুরীতে ডাক্তারের স্মরণাপন্ন হন।

ডাক্তারের কাছে কখন যাবেন

কখনও কখনও মাছের হাড় নিজে থেকে বের হয় না। সেক্ষেত্রে আপনার ডাক্তারের সাথে দেখা করুন।

যদি মাছের হাড় আপনার খাদ্যনালীতে বা আপনার পরিপাকতন্ত্রের অন্য কোথাও আটকে থাকে, তাহলে এটি সত্যিকারের বিপদ ডেকে আনতে পারে। এটি আপনার খাদ্যনালীতে ছিঁড়ে যেতে পারে, একটি ফোড়া হতে পারে এবং বিরল ক্ষেত্রে জীবন-হুমকির জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।

আপনার ব্যথা গুরুতর হলে বা কয়েক দিন পরে না গেলে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। আপনি অনুভব করলে অবিলম্বে চিকিৎসা সহায়তা পান:

  • বুক ব্যাথা
  • আঘাত
  • ফোলা
  • মুখ থেকে অত্যধিক লালা ঝড়া
  • খাওয়া বা পান করতে অক্ষমতা

একজন ডাক্তার কি চিকিৎসা দিতে পারেন

যদি আপনি নিজে মাছের হাড় বের করতে না পারেন, তবে আপনার ডাক্তার সাধারণত এটি সহজেই সরিয়ে ফেলতে পারেন। যদি তারা আপনার গলার পিছনে মাছের হাড় দেখতে না পাযন, তবে তারা সম্ভবত একটি এন্ডোস্কোপি করবে।

একটি এন্ডোস্কোপ হল একটি লম্বা, নমনীয় নল যার প্রান্তে একটি ছোট ক্যামেরা থাকে। আপনার ডাক্তার এই টুলটি ব্যবহার করে মাছের হাড় বের করতে বা আপনার পেটে ঠেলে দিতে পারেন।

প্রতিরোধ টিপস

কিছু লোকের গলায় মাছের হাড় বা অন্যান্য খাবার আটকে যাওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে।

এটি এমন ব্যক্তিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় যাদের দাঁত চিবানোর সময় হাড় অনুভব করতে সমস্যা হয়। এটি শিশু, বয়স্ক প্রাপ্তবয়স্ক এবং যারা নেশাগ্রস্ত অবস্থায় মাছ খান, তাদের মধ্যেও এটি সাধারণ।

আপনি পুরো মাছের পরিবর্তে মাছের পেটি কিনে আপনার ঝুঁকি কমাতে পারেন। যদিও ছোট হাড় কখনও কখনও মাছের পেটিতেও পাওয়া যায়, তবে তাদের মধ্যে সাধারণত কম থাকে।

শিশু এবং উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তিরা যখন হাড়ের মাছ খাচ্ছেন তাদের সর্বদা তদারকি করুন। ছোট কামড় খাওয়া এবং ধীরে ধীরে খাওয়া আপনাকে এবং অন্যদের মাছের হাড় আটকে যাওয়া এড়াতে সহায়তা করবে।

ক্যাটাগরিঃ টিপস ও ট্রিক্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.