Android Phone কে Mobile Wi-Fi HotSpot বানানোর উপায় জেনে নিন

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaটিপস ও ট্রিক্সAndroid Phone কে Mobile Wi-Fi HotSpot বানানোর উপায় জেনে নিন
Advertisements

Android phone এর মোবাইল ডাটা ব্যবহার করে ফোনের সাথে থাকা Wi-Fi প্রযুক্তি ব্যবহার করে অন্যান্য Wi-Fi সম্বলিত ডিভাইসের সাথে সংযুক্ত করে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়। ফাস্ট ফুডের দোকানে খেতে খেতে দোকানের ফ্রি Wi-Fi জোনে থাকা অবস্থায় ল্যাপটপে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়। এটা খুব সহজেই করা যায়। কিন্তু, ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহারে সিকিউরিটি সমস্যা রয়েছে।

Mobile Wi-Fi hotspot এর আরেকটা বাড়তি সুবিধা রয়েছে। বাংলাদেশ তো! যখন-তখন ব্রডব্যান্ডের কানেকশন চলে যেতে পারে। এই ক্ষেত্রে মোবাইল হটস্পট ব্যবহার করে সেকেন্ডের মধ্যে ইন্টারনেট পূনঃসংযোগ করা যায়। এই পদ্ধতিটি বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের খুবই কাজে লাগে।

অ্যান্ড্রেয়েডের ডিভাইসগুলো ব্যবহারের এটা একটা বিশাল প্লাস পয়েন্ট। অ্যান্ড্রেয়েড ফোনের কোম্পানী এবং মডেল ভেদে মোবাইল হটস্পট চালু করার পদ্ধতিতে ভিন্নতা রয়েছে – অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের উপরেও হটস্পট চালুর ধাপগুলোতে কমবেশী হতে পারে।

যেভাবে ফোনের Mobile Wi-Fi Hotspot কনফিগার করা হয়

অ্যান্ড্রেয়েড ওএস ২.২ ভার্সন ওরফে Froyo থেকে Wi-Fi hotspot ফিচারটি যুক্ত করা হয়। বর্তমান সময়ের সব মোবাইলেই Wi-Fi রয়েছে।

শুরু করার আগে চেক করে দেখে নিন, আপনার মোবাইলে যথেষ্ট পরিমাণে মোবাইল ডাটা রয়েছে কিনা।

Wi-Fi hotspot শুরু করার জন্য আপনার ডিভাইসের app drawer কি ড্র্যাগ করে নিচে নামিয়ে বা উপরে থেকে উঠিয়ে Setting টি বের করুন। এটি সাধারণতঃ একটা গিয়ার আইকনের মত। আইকনটি ট্যাপ দিয়ে চালু করুন।

Android hotspot notification shade settings button

এখন যে স্টেপটি শুরু করব তা ডিভাইসের উপরে নির্ভর করে ভিন্ন হতে পারে। সাধারণতঃ Samsung ডিভাইসে এটি “Connections” নামে অথবা, “Network & Internet” নামে থাকতে পারে।

Android hotspot settings menu

Samsung ডিভাইস হলে “Mobile Hotspot and Tethering” এ ট্যাপ করুন। অন্য ব্র্যান্ডের ডিভাইসে এটি “Hotspot & Tethering” নামে থাকতে পারে।

Android hotspot connections menu

একটি Samsung ডিভাইসে, এটি কনফিগার করতে “Mobile Hotspot” এ আলতো চাপুন – টগল বাটনটি ট্যাপ করবেন না, যদি না আপনি ইতিমধ্যে আপনার হটস্পটটি কনফিগার না করে থাকেন। অন্যান্য অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে, “Portable Wi-Fi Hotspot” এর নীচে “Set Up Wi-Fi Hotspot” এ আলতো চাপুন।

Android hotspot initial tethering menu

বেশিরভাগ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে, আপনি সাধারণতঃ এই মেনুতে আপনার ওয়াই-ফাই হটস্পটটি কনফিগার করেন। এবার, একটি উপযুক্ত নেটওয়ার্কের নাম, একটি পাসওয়ার্ড, একটি Wi-Fi security option সিলেক্ট করুন এবং তারপরে “Save” বাটনে ট্যাপ করুন।

আপনি যদি Samsung ডিভাইস ব্যবহার করেন, তবে উপরের বাম দিকে “hamburger menu” টিপুন এবং তারপরে এই সেটিংসটি অ্যাক্সেস করতে “Configure Mobile Hotspot” এ ট্যাপ করুন।

Android hotspot extra configuration button

তারপরে আপনি আরও বিস্তারিতভাবে আপনার নেটওয়ার্কের নাম, পাসওয়ার্ড এবং Wi-Fi সেটিংস কাস্টমাইজ করতে পারেন। আপনার কাজ শেষ হয়ে গেলে “Save” বাটনে ট্যাপ করুন।

Android hotspot extra configuration

অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে Wi-Fi Hotspot চালু করা

আপনি আপনার Wi-Fi হটস্পটটি কনফিগার করার পরে, ” Wi-Fi Hotspot” (প্রায় সব অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে এই নামে থাকে) বা “Mobile Hotspot” (Samsung) টগল করুন।

Android hotspot initial tethering menu

Wi-Fi hotspot চালু করার কারণে অ্যান্ড্রয়েড আপনাকে বর্ধিত ডেটা এবং ব্যাটারির ব্যবহার সম্পর্কে সতর্ক করতে পারে; এটা নিশ্চিত করতে “OK” বাটনে ট্যাপ করুন। খেয়াল করুন, আপনার ডিভাইসের Wi-Fi হটস্পট এখন সক্রিয় হয়েছে। এখন আপনি আপনার সাথে থাকে অন্যান্য Wi-Fi সম্বলিত ডিভাইস যেমন, ল্যাপটপের সাথে মোবাইলের হটস্পট ব্যবহার করে ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত হতে পারবেন।

Android hotspot warning confirmation

আপনার মোবাইল হটস্পটটি একবার সক্রিয় হয়ে গেলে, এটি আপনার অন্যান্য ডিভাইসে অন্য কোনও Wi-Fi নেটওয়ার্কের মতো দেখাবে। সংযোগের জন্য সেটআপ করার সময় আপনি যে পাসওয়ার্ডটি নির্বাচন করেছেন তা ব্যবহার করুন।

হটস্পট ফিচারটি একবার চালু হওয়ার পর এটি সহজে বন্ধ বা চালু করা যায়। সাধারণতঃ একবার হটস্পট চালু হওয়ার পরে নোটিফিকেশন অ্যাপ ড্রয়ার বা নোটিফিকেশন শেডে “Hotspot” নামের আইকনটি গাঢ় কালিতে লেখা থাকে। এই “Hotspot” বা “Mobile Hotspot” আইকনে ট্যাপ করে এইটি প্রয়োজন মত চালু বা বন্ধ করা হয়।

Android hotspot notification shade quick button

আপনি যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ওয়াই-ফাই হটস্পটের সাথে একাধিক ডিভাইস সংযোগ করার পরিকল্পনা করেন, তবে আপনার মোবাইল ডেটা ব্যবহারের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। অ্যান্ড্রয়েডে, আপনার যদি সীমিত ডাটা থাকে, তবে আপনি নিজের ডেটা ব্যবহার মনিটর ও একটা লিমিট সেট করে দিতে পারেন।

আপনার ডিভাইসে ডেটা লিমিট করা থাকলে, ডেটা ব্যবহারের লিমিটে পৌঁছে গেলে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডেটা সংযোগটি বন্ধ করে দিবে।

Tethering ব্যবহারের সীমাবদ্ধতা ও থার্ড-পার্টি অ্যাপের ব্যবহার

গুগল প্লে স্টোর থেকে থার্ড-পার্টি অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে আপনি চাইলেই ওয়াই-ফাই হটস্পট তৈরি করতে পারেন, তবে বেশিরভাগ লোকদের এগুলি নিয়ে মাথা না ঘামালেই চলবে। কেননা, যারা অন্যান্য ডিভাইসগুলির সাথে ব্যবহারের জন্য Wi-Fi নেটওয়ার্ক সেটআপ করতে চান, তাদের বেশির ভাগের জন্য বিল্ট-ইন অ্যান্ড্রয়েড হটস্পট পদ্ধতি দুর্দান্ত কাজ করে।

তবে, যদি আপনার মোবাইল ক্যারিয়ারটি আপনাকে আপনার ফোনে অন্যান্য ডিভাইসগুলিতে ডেটা ব্যবহার করতে না দেয়, তবে স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড্রয়েড হটস্পট পদ্ধতিটি আপনার ডিভাইসে কাজ নাও করতে পারে। বাংলাদেশে অবশ্য এ নিয়ে দুঃশ্চিন্তা করার কারণ নাই। অন্যান্য দেশের কোন মোবাইল কোম্পানী হয়ত এমন রেস্ট্রিকশন দিয়ে রাখতে পারে।

এমন পরিস্থিতিতে PdaNet+ এর মতো অ্যাপ্লিকেশনগুলি একটি বিকল্প পদ্ধিতে ডেটা নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সুযোগ করে দেয়। তবে, সম্পূর্ণরূপে টিথারিং বিধিনিষেধগুলি বাইপাস করার জন্য আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনটিকে root করার প্রয়োজন হতে পারে। এবং মনে রাখবেন, বিকল্প পদ্ধতিতে এভাবে ডেটা ব্যবহার করা সম্ভবত আপনার মোবাইল ক্যারিয়ারের টার্মস এবং কন্ডিশনের শর্তাবলীগুলোকে লঙ্ঘন করে।


Photo by Charles 🇵🇭 on Unsplash

পড়ার মত আরও আছে

ক্যাটাগরিঃ টিপস ও ট্রিক্স

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.