Skype Tutorial – এক পেজে সব কিছু

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaটিউটোরিয়ালSkype Tutorial – এক পেজে সব কিছু

Skype কি?

স্কাইপ (Skype) এমন একটি ফ্রি সফটওয়্যার যা আমাদের কম্পিউটার বা মোবাইল ডিভাইসে ইন্সটল করে পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সাথে অডিও ও ভিডিও কল এবং টেক্সট চ্যাট করতে পারি। এটিতে ভিডিও চ্যাট করার সময় একই সাথে কথা বলার সুযোগ করে দিয়েছে।

স্কাইপ মূলতঃ VoiceOver IP (VoIP) বা ভিওআইপি টেকনোলজিকে ব্যবহার করে। এই টেকনোলজি ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষের কণ্ঠস্বরকে ইন্টারনেটের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে পাঠানো হয়। প্রচলিত ফোন লাইনের এর পরিবর্তে ইন্টারনেটে স্কাইপে ব্যবহার করে আমরা দেশে ও বিদেশে আমাদের অডিও-ভিডিও একক ও গ্রুপ কল সেরে ফেলতে পারছি। এ কারণে সবার কাছে এই সফটওয়্যারটি দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

স্কাইপ ব্যবহার করতে কেমন পয়সা গুণতে হয়?

স্কাইপ’র ভয়েস কলিং, ভিডিও কলিং এবং ইন্সট্যান্ট মেসেজিং ছাড়াও এর সবচেয়ে আকর্ষনীয় ফিচার হল – এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায়। পিসি-টু-পিসি ও ডিভাইস-ডিভাইস ব্যবহারে স্কাইপ দিয়ে বিনামূল্যে ব্যবহার করা গেলেও স্কাইপ থেকে ল্যান্ড ফোন বা মোবাইল নাম্বারে ফোনের ক্ষেত্রে আপনাকে টাকা গুণতে হবে – যা কয়েক সেন্ট (cent) থেকে শুরু করে মাস ভিত্তিতে কয়েক ডলার পর্যন্ত হতে পারে। স্কাইপ এর এই মূল্য তালিকায় এ ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

ভিওআইপি (VoIP) ও অডিও/ভিডিও কল করা জন্য Skype ছাড়াও আরও কিছু সফটওয়্যার প্রচলিত রয়েছে। এই সফটওয়্যারগুলোর সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর ওয়েবসাইট থেকে বিস্তারিত জানা যাবে।

স্কাইপ সেটআপ করতে যা যা করণীয়

স্কাইপ ইন্সটল করার জন্য যা যা লাগে সম্ভবতঃ সবই আপনার কাছে ইতোমধ্যেই আছে। একটা আরামদায়ক হেডসেট হলে তা কথা বলার সময় আপনাকে স্বাচ্ছন্দ্য এনে দিবে। সেটআপ করার চলুন কয়েকটা ইকুইপমেন্টের অপশনগুলো সম্পর্কে জেনে নেই এবং আপনার পিসি বা মোবাইল ডিভাইসটি সেটআপের জন্য রেডি কি না তা নিশ্চিত হই।

ইকুইপমেন্ট চেকলিস্ট

স্কাইপ ব্যবহার করতে হলে এই লিস্টের সব কিছু আছে কিনা দেখে নেই। আপনার লাগবেঃ

  • কম্প্যাটিবল ডিভাইসঃ বিভিন্ন ধরণের অপারেটিং সিস্টেম ও ডিভাইসে স্কাইপ ব্যবহার করা যায়, যেমনঃ ডেস্কটপ, ল্যাপটপ এবং স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট’র মত মোবাইল ডিভাইসে।
  • হাই-স্পীড ইন্টারনেট কানেকশন (3G, 4G, Broadband Connection)
  • স্পীকার এবং মাইক্রোফোন (বাজারে মাইক্রোফোনসহ হেডফোন পাওয়া যায়, সে ক্ষেত্রে স্পীকার লাগবে না)
  • ভিডিও কল করতে চাইলে ১টি ওয়েবক্যাম প্রয়োজন হবে। ল্যাপটপ এবং মোবাইল ডিভাইসগুলোর সাথে থাকা ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও কল করা যায়। পিসি’র জন্য ওয়েবক্যাম আলাদা করে কিনতে হবে। মোটামুটি মানের ওয়েবক্যাম ১৫০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।

Skype এর কোন ভার্সন সেটআপ করবেন?

আপনার কম্পিউটারে কোন ধরণ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহৃত হচ্ছে, তার উপরে ভিত্তি করে Skype ডাউনলোড হয়ে থাকে। যেমনঃ Windows জন্য এক রকম ভার্সন, Mac এর অন্য আরেক রকম। আবার, স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটের জন্য এই Skype এ্যাপ আকারে পাওয়া যায়। আবার, Google Chrome, Safari ওয়েব ব্রাউজার থেকে Skype এর ওয়েবসাইটে (https://web.skype.com/) লগ ইন করেও স্কাউপ ব্যবহার করতে পারবেন।

এই টিউটোরিয়ালে ওয়েব ব্রাউজার স্কাইপ ব্যবহার করব। আপনি যদি স্কাইপ’র অন্য কোন ভার্সন ব্যবহার করে থাকেন তাতেও কোন সমস্যা হবে না। স্কাইপ’র যত ফিচার আছে, সব ভার্সনেই তা একইভাবে কাজ করে। সুতরাং, স্কাইপ’র ওয়েব ভার্সনে কোন ফিচার দেখার পরে একই নিয়ম অনুসরণ করে অন্য সবগুলো ভার্সনগুলোতে ঐ ফিচার ব্যবহার করতে কোন সমস্যা হবে না।

ওয়েবে স্কাইপ শুরু করার পদ্ধতি

স্কাইপ সেটআপ করতে কয়েক মিনিট সময় সময় লাগে। এর ওয়েবসাইট থেকে নতুন একটা এ্যাকাউন্ট তৈরী করেই এটি ব্যবহার শুরু করে দেয়া যায়।

আপনার যদি @hotmail.com বা @outlook.com এর ইমেইল এ্যাকাউন্ট থেকে থাকে যার সাহায্যে Microsoft এর OneDrive বা XBox Live সার্ভিসগুলো ব্যবহার করা যায় – তবে আপনাকে আর নতুন করে Skype এর জন্য নতুন করে এ্যাকাউন্ট খুলতে হবে না – আপনার এতোমধ্যেই Skype এ্যাকাউন্ট তৈরী হয়েই আছে। আপনার @hotmail.com বা @outlook.com এর এ্যাকাউন্ট দিয়ে Skype’র ওয়েবসাইটে স্বাচ্ছন্দ্যে লগইন করতে পারবেন।

Skype এ্যাকাউন্ট তৈরী

১। ব্রাউজারে http://web.skype.com ঠিকানায় গিয়ে “Create new account” লিংকে ক্লিক করি।

Create new account in Skype

২। সাইনইন ফরম আসবে। নির্দেশিত উপায়ে নাম, জন্ম তারিখ, এবং জেন্ডার ফিল্ডে সঠিক তথ্য লিখি। এ ছাড়াও আপনাকে user name লিখতে হবে। অন্য স্কাইপ ব্যবহারকারীগণ আপনার এই ইউজার নেম লিখে সার্চ দিয়ে আপনাকে স্কাইপে যুক্ত করতে পারবে।

৩। এবার সাইন-ইন ফরমে থাকা “I agree – Continue” বাটনে ক্লিক করুন। এই বাটনের উপরে স্কাইপ’র terms of service এবং privacy policy’র ২টি লিংক রয়েছে, প্রয়োজনে লিংক দু’টি পড়ে ফেলতে পারেন।

Skype signin form

৪। এ পর্যায়ে আপনার এ্যাকাউন্টটি তৈরী হয়ে ব্যবহারের জন্য সম্পূর্ণ উপযোগী হবে এবং ব্রাউজারে Skype’র ইউজার এন্টারফেসটি দেখতে পাবেন।

ওয়েবসাইটে স্কাইপ’র ইন্টারফেসের সাথে পরিচয়

ফ্রি কল-করার সফটওয়্যার স্কাইপ এ আপনার একাউন্টটি তৈরী। এবার চলুন ওয়েবে স্কাইপ’র সাথে পরিচিত হওয়া যাক।

প্রথম বার এর ইন্টারফেসের উপরে কিছু কমলা রঙের + চিহ্নিত বাটন দেখা যায়। এর উপরে ক্লিক করে সংশ্লিষ্ট ফিচার সম্পর্কে প্রাসঙ্গিক তথ্য জানা যাবে।

Getting familiar with Skype for Web

কন্টাক্ট যোগ করা

আপনার কোন বন্ধু বা আত্মীয়-স্বজন কি Skype ব্যবহার করেন? চলুন তাহলে আপনার স্কাইপ এ্যাকাউন্টে কন্টাক্ট লিস্টের সাথে তাদেরকে যুক্ত করে নেই। কন্টাক্টগুলোকে ম্যানুয়ালি একটা-একটা করে যোগ করেন বা ফেসবুক বা আউটলুক থেকে ইম্পোর্ট করে যোগ করেন না কেন – স্কাইপ এ কাউকে কল করতে, বা চ্যাট করতে বা ভিডিও কনফারেন্স করতে হলে আপনাকে অবশ্যই আগে তাদেরকে যোগ করে নিতে হবে।

একটা কন্টাক্ট যোগ করতে যা করনীয়

১। যাকে যোগ করবেন স্কাইপ’র সার্চ বারে তার নাম, স্কাইপ নাম, বা ইমেইল এ্যাড্রেস লিখুন। আপনার ইনপুটের উপরে ভিত্তি করে স্কাইপগুলো এক বা একাধিক সাজেশন দেখাবে। সেখান থেকে যে কোন কন্টাক্টের উপরে ক্লিক করে আরও তথ্য জানতে পারবেন।

Add new contact to your Skype account

২। আপনি যাকে খুঁজছেন তাকে পেলে “Add to Contacts” এ ক্লিক করুন। আপনার কাঙ্খিত কন্টাক্টের কাছে একটি “contact request” পৌঁছে যাবে।

Skype contact request

Contact Request কে কন্টাক্ট হিসাবে সেভ করা

স্কাইপ এ Contact request এর মাধ্যমে আপনি কাউকে নতুন কন্টাক্ট হিসাবে যোগ করতে পারবেন – বা কেউ আপনাকে কন্টাক্ট হিসাবে যোগ করবে। নতুন কোন কন্টাক্ট রিকুয়েস্ট পেলে আপনি তাকে গ্রহন (accept), বর্জন (decline) বা ব্লক (block) করে দিতে পারবেন।

Accept, decline or block a contact request

কন্টাক্ট ইম্পোর্ট করা (Importing contacts)

আপনার Google বা Yahoo! থেকে সব কন্টাক্ট ইম্পোর্ট করে স্কাইপ এ আপনার এ্যাকাউন্টে সহজে স্কাইপ কন্টাক্ট যোগ করতে পারবেন। অন্যান্য সোর্স থেকে কন্টাক্ট ইম্পোর্ট করার ক্ষেত্রে স্কাইপ’র লিমিট রয়েছে, তবে এইটি দিয়ে আপনার প্রয়োজনীয় কন্টাক্টগুলো যারা স্কাইপ ব্যবহারে করেন, তাদেরকে যোগ করে নিতে পারবেন।

কন্টাক্ট ইম্পোর্ট করতে

১। Settings গিয়ার আইকন সিলেক্ট করুন, Contacts বেছে নিন; এবার “Automatically add friends” অপশন এ ক্লিক

Importing contacts in Skype

২। “Manage address books” সিলেক্ট করুন।

Automatically add friends in Skype

৩। একটি ডায়ালগ বক্স আসবে। সেখান থেকে আপনি যে সার্ভিস থেকে ইম্পোর্ট করবেন, সেটি সিলেক্ট করুন। Username এবং Password চাইলে তা সঠিকভাবে লিখে দিন।

Skype Contact source

৪। আপনার কাঙ্খিত সার্ভিসের সাথে যুক্ত হয়ে সব কন্টাক্টকে ইম্পোর্ট করবে এবং কন্টাক্টগুলো থেকে যাদের ইতোমধ্যে Skype এ্যাকাউন্ট রয়েছে তাদেরকে আপনার স্কাইপ এ্যাকাউন্টে নতুন কন্টাক্ট হিসাবে যোগ করে নিবে।

Skype দিয়ে Voice call কিভাবে করব?

আমাদের স্কাইপ সেটআপ তৈরী করেছি; এবার কোন কন্টাক্টের সাথে প্রথম বারের মত কল করব। এই কাজটি একেবারেই সহজ।

কল করার আগে আমাদেরকে একটা test call করতে হবে। এটি একটি ডায়াগনস্টিক প্রসেস যার মাধ্যমে স্কাইপ পরীক্ষা করে দেখে যে, অডিও বা ভিডিও কল করার জন্য পিসি বা ডিভাইসে প্রয়োজনীয় সেটআপ ঠিক আছে কি না।

টেস্ট কল করতে যা যা করণীয়

স্কাইপ কোম্পানীর সার্ভারে একটি স্পেশাল ইউজার তৈরী করা আছে। টেস্ট কল করার সময় স্কাইপ আসলে এই ইউজারকে কল করে। এটি অনেকটা আপনার কোন কন্টাক্টকে কল করার মতই কাজ করে। স্কাইপের এই সার্ভিসের নাম Skype Test Call বা Echo/Sound Test Service। এই কন্টাক্টটি আপনার কন্টাক্টটে দেয়াই থাকে। শুরু করার আগে, নিশ্চিত হয়ে নিন যেঃ

  • আপনি ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হয়ে আছেন,
  • ভলিউম এমনভাবে বাড়ানো আছে যাতে আপনি ঠিক মত শুনতে পান
  • পিসি’র সাথে স্পীকার এবং মাইক্রোফোন যুক্ত করা আছে (বিল্ট-ইন অডিও সেটআপ থাকলে আলাদা করে মাইক্রোফোন ও স্পীকার লাগানোর প্রয়োজন নাই)

টেস্ট কল

১। আপনার কন্টাক্ট লিস্ট থেকে Echo/Sound Test Service এর উপরে ক্লিক করুন।

Skype echo sound test service

২। কন্টাক্টের তথ্য দেখাবে। সেখান থেকে Call বাটনে ক্লিক

Skype call information and call button

৩। Call window দেখানোর সাথে test call শুরু হয়ে যাবে। মহিলা কণ্ঠে যে অপারেটর আপনাকে ৩০ সেকেন্ডের জন্য আপনাকে কথা বলতে বলবে। এই সময়ের পর আপনি যে ভয়েস দিয়েছেন সেটিই আপনাকে প্লেব্যাক করে শুনানো হবে। প্লেব্যাকের পরে কলটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেটে যাবে।

Skype voice test

এখানে খেয়াল রাখতে হবে যে, আপনি যদি কল করতে না পারেন, বা অপারেটরের কথা শুনতে না পান, বা আপনার ভয়েস রেকর্ড করার পর প্লেব্যাক না শুনতে পান, তবে বুঝতে হবে আপনার পিসি’র সেটিং বা ইকুইপমেন্টের কোথায় গোলযোগ দেখা দিয়েছে। সমস্যা চিহ্নিত করতে, এই লিস্টের উপরে প্যারাতে ফিরে যেতে হবে এবং স্কাইপ’র Call Quality Guide টি পড়ে দেখুন।

Video Call শুরু করব যেভাবে

স্কাইপ সেটআপ দিয়ে ফেস-টু-ফেস ভিডিও কল করব না?! বিল্ট-ইন বা আলাদা করে কেনা ওয়েবক্যাম থাকলেই হল – স্কাইপে ভিডিও কল করাও ডাল-ভাত খাওয়ার মত সহজ।

ভিডিও কল করবার জন্য একজন এ্যাকটিভ কন্টাক্ট প্রয়োজন হবে। তার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন যে, আপনার ওয়েবক্যাম ও হেডসেট ঠিক মত কাজ করছে। ঠিক থাকলে আপনি যে কোন একজনের সাথে অথবা একাধিক কন্টাক্টের সাথে গ্রুপ কল করতে পারবেন। তার আগে নিচের চেকলিস্টটাতে একবার চোখ বুলিয়ে নেই।

  • ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত আছেন
  • ভলিউম সঠিক লেভেল বাড়ানো আছে যাতে ঠিক মত শোনা যায়
  • স্পিকার ও মাইক্রোফোন সঠিকভাবে সংযুক্ত করা আছে (ল্যাপটপ ও ডিভাইসে বিল্ট-ইন থাকে)
  • ওয়েবক্যাম সংযুক্ত আছে (ল্যাপটপ ও ডিভাইসে বিল্ট-ইন থাকে)

আসুন এবার ভিডিও কল করি

১। কন্টাক্ট লিস্ট থেকে যার সাথে ভিডিও কল করবেন তার নামের উপরে ক্লিক করি

Skype video call select contact

২। স্কাইপ’র ডান দিকের প্যানেলে কন্টাক্টের বিস্তারিত তথ্য সম্বলিত পেজ এসে হাজির হবে। Video call বাটনের উপরে ক্লিক করি।

Skype video call button

৩। কল উইন্ডো হাজির হবে। রিং করার শব্দ হতে থাকবে – এ অবস্থায় আপনার কন্টাক্ট কল রিসিভ করলে আপনি তার কণ্ঠস্বর শুনতে পাবেন। আপনার ওয়েবক্যাম যা ক্যাপচার হচ্ছে (আপনার কন্টাক্ট আপনাকে যেভাবে দেখছে) সেটা স্কাইপ’র নিচের দিকে ছোট উইন্ডোতে দেখা।

৪। আপনার স্ক্রিনের উপরের দিকে কন্টাক্টের ভিডিও দেখতে পাবেন। কিন্তু, যদি আপনার কন্টাক্টের ওয়েবক্যাম না থাকে, বা তিনি যদি ওয়েবক্যামের ভিডিও আপনাকে না দেখাতে চান, সেক্ষেত্রে আপনি শুধু তার প্রোফাইল ফটো দেখতে পাবেন।

৫। যতক্ষন খুশী ভিডিও কল উপভোগ করুন। কাজ শেষে End Call বাটনে চাপ দিয়ে ভিডিও কল বন্ধ করে দিন।

Skype video call end

কেউ আপনাকে ভিডিও কল করলে তা যে ভাবে রিসিভ করবেন

স্কাইপে কেউ আপনাকে ভিডিও কল করলে সেটা আপনার স্কাইপ এ কেমন ভাবে দেখা যায়? এ সময় একটা পপ-আপ উইন্ডো দেখা যাবেঃ

আপনার কাছে আসা ভিডিও কল রিসিভ করতে video button এ ক্লিক করুন; আর যদি কলারকে না চিনতে পারেন বা খুব ব্যস্ত থাকলে লাল-ফোন চিহ্নিত বাটনে ক্লিক করে কেটে দিতে পারেন। যদি অপর প্রান্তের কলারকে আপনার ভিডিও দেখাতে না চান বরং শুধু অডিও কল শুরু করতে চান, তবে মাঝের audio button এ চাপ দিন। অডিও কল চলাকালীন সময়ে যদি ভিডিও অন করার প্রয়োজন পরে, তবে video button এ টুক করে চাপ দিয়ে দিন। একটা ব্যাপার!!! অপর প্রান্তের কলার কল করার পর আপনি যদি কল রিসিভ না করেন তবে কল বাজতেই থাকবে যতক্ষণ না অপর প্রান্ত থেকে কল কেটে না দিচ্ছে।

গ্রুপ ভিডিও কলিং (Group video calling)

গ্রুপ ভিডিও কলের মাধ্যমে খুব সহজ উপায়ে একাধিক কন্টাক্টের সাথে কথা বলতে পারবেন। এ জন্য ভিডিও কল চলাকালীন অবস্থায় + চিহ্নিত বাটনে চাপ দিয়ে “Add participants” অপশনে চাপ দিয়ে যে সমস্ত কন্টাক্ট প্রয়োজন তাদের সিলেক্ট করে নিন।

ইন্সট্যান্ট মেসেজের মাধ্যমে চ্যাটিং

চলুন এবার চ্যাট করা যাক। স্কাইপ এ ইন্সট্যান্ট মেসেজিং (- সংক্ষেপে IM আই.এম.) এর মাধ্যমে আপনার লিস্টে যে কারও কাছে শর্ট মেসেজ পাঠাতে পারবেন – প্রতি-উত্তরে আপনার কন্টাক্টও আপনাকে সর্ট মেসেজের প্রতিউত্তর দিতে চ্যাটে অংশগ্রহন করতে পারবে। কলের পাশাপাশি এই IM ও একটি জনপ্রিয় যোগাযোগ পদ্ধতি। কল না করে ঝটপট কাউকে কোন কিছু জিজ্ঞাসা করে উত্তর জানার ক্ষেত্রে এটি বেশ কার্যকর পদ্ধতি।

স্কাইপ এ IM (আই.এম.) পাঠাবেন যেভাবে

১। কন্টাক্ট লিস্ট থেকে যাকে মেসেজ পাঠাতে চান তার নামের উপরে ক্লিক করুন।

Skype instant messaging select

২। কন্টাক্টের তথ্য সম্বলিত স্ক্রিন আসবে। এবার নিচের দিকে থাকা মেসেজ বক্সে আপনার মেসেজ লিখুন এবং Send বাটনে ক্লিক করুন; বা, Enter চাপ দিলেও আপনার কন্টাক্টের কাজে শর্ট মেসেজ বা খুদে বার্তা চলে যাবে।

Skype IM send

৩। আপনার কন্টাক্ট অন-লাইনে সজাগ থাকলে আপনার মেসেজ দেখতে পাবে এবং আপনাকে প্রতিউত্তর দিবেন। পূর্বের চ্যাটের হিস্টোরী উপরের দিকের অংশে দেখতে পাওয়া যাবে।

জানা থাকা ভাল যে, অডিও ও ভিডিও কল চলাকালীন সময়েও চ্যাট করতে পারবেন। এ সময় ফোন নাম্বার, বা লিংক, বা যে কোন ধরণের লেখা পাঠাতে পারবেন।

IM (আই.এম.) রিসিভ করা

স্কাইপ এ কেউ আপনাকে IM (আই.এম.) পাঠালে আপনার কন্টাক্ট লিস্টে যিনি পাঠিয়েছেন তার নামের ডান দিকে একটি ছোট নোটিফিকেশন চিহ্ন দেখতে পাবেন। ঐ কন্টাক্টের উপরে ক্লিক করে সহজেই তার মেসেজ দেখতে পাবেন।

Skype IM receive notification

স্কাইপ এ স্ক্রিন বা ফাইল শেয়ারিং করা

স্কাইপ এ আপনার কন্টাক্টের সাথে বিভিন্ন উপায়ে কোন কিছু শেয়ার করতে পারবেন। এর মাঝে একটি হল Screen sharing – এটি এমন একটি ফিচার যার সাহায্যে আপনার স্ক্রিনে যা কিছু তা যে কোন কন্টাক্টের সাথে লাইভ ভিডিও হিসাবে শেয়ার করতে পারবেন – যেমনঃ ব্রাউজারে লোড করা কোন ওয়েবসাইট বা কোন চলমান কোন সফটওয়্যার বা এক্সেল শীট, ইত্যাদি। এই ফিচারের মাধ্যমে আপনি আপনার কন্টাক্টের পিসিতে রিমোটলি কোন কিছু শিখানোর উদ্দ্যেশ্যে ডেমো করে দেখাতে পারবেন, অথবা, আপনি যা কিছু আপনার পিসিতে বসে করছেন, তা অন্য কাউকে দেখাতে পারবেন।

এর আরেকটি উপকারী ব্যবহার হল, অন্য কন্টাক্টের কাছে কোন ফাইল পাঠানো। এর সাহায্যে বিভিন্ন ফরম্যাটের ফাইল যেমন ডকুমেন্ট, ফটো, প্রেজেন্টেশন, বা আপনার পিসিতে থাকা যে কোন ফাইলকে পাঠাতে পারবেন।

আপনার স্ক্রিন শেয়ার করতে যা করবেন

১। ভিডিও বা ভয়েস কলের সময় প্লাস লেখা বাটনে (+) ক্লিক করে Share screens… সিলেক্ট করুন।

Skype share screen button

২। আপনার স্ক্রিনের একটি প্রিভিউ দেখাবে। Share Screen সিলেক্ট করুন।

Skype share screen confirm

৩। অপর প্রান্তে থাকে আপনার কন্টাক্ট এবার আপনার স্ক্রিনে যা কিছু আছে – ডেক্সটপ এবং কি কি সফটওয়ার চালাচ্ছেন – তার সবই লাইভ ভিডিও হিসাবে দেখতে পাবেন।

৪। আপনার স্ক্রিন শেয়ারিং বন্ধ করতে, আবার plus button (+) এ ক্লিক করে Stop sharing অপশনটি সিলেক্ট করুন।

Skype stop share screen

খেয়াল করুন, আপনার স্ক্রিন শেয়ারিং করলে অপরপ্রান্তে থাকে কন্টাক্ট আপনার সম্পূর্ণ ডেক্সটপ দেখতে পান। যদি আপনার স্ক্রিনে এমন কিছু থাকে যা তাকে দেখতে দিতে চান না, তবে আগে-ভাগেই তা বন্ধ করে ফেলুন।

স্কাইপ এ ফাইল পাঠানো

১। কল বা আই.এম. চলাকালীন সময়ে, মেসেজ বক্স থেকে Share File বাটনে চাপ দিন।

Skype share file button

২। যে সমস্ত ফাইল শেয়ার করবেন সেগুলো সিলেক্ট করে Open বাটনে ক্লিক করুন।

Skype share file select

৩। আপনার সিলেক্ট করা এক বা একাধিক ফাইল মেসেজ বক্সের হিস্টোরীতে দেখতে পাবেন। আপনার কন্টাক্ট ফাইলগুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

Skype share file done

একই পদ্ধতিতে আপনার কন্টাক্টও আপনাকে ফাইল পাঠাতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে যে, আপনার কন্টাক্টের পিসি ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার আক্রান্ত হলে তার পাঠানো ফাইল থেকে আপনার পিসিও ভাইরাস না ম্যালওয়্যার আক্রান্ত হতে পারে। সুতরাং কোন পাঠানো ফাইল দেখে সন্দেহজনক মনে হলে, তা না খুলে মুছে নিন। প্রয়োজনে আপনার কন্টাক্টকে আবার কল করে বা মেসেজ পাঠিয়ে নিশ্চিত হয়ে নিন যে তার পাঠানো ফাইলে কোন ধরণের ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার নেই।


পড়ার মত আরও আছে

ক্যাটাগরিঃ টিউটোরিয়াল

One thought on “Skype Tutorial – এক পেজে সব কিছু

  1. আমার স্কাইপিতে ফ্রেন্ডদের সবার সাথে চ্যাট ঠিক আছে কিন্তু একজনকে কোনো ছবি অডিও বা ভিডিও শেয়ার করতে পারছিনা।সেন্ডিং চলতে থাকে কিন্তু সেন্ড হয় না।মোবাইলে ঠিক আছে কিন্তু ল্যাপটপে সমস্যা।
    এর সমাধান কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.