সিম্ফোনি আই১১০ স্মার্টফোন রিভিউ

HelloBanglaWorld - Know Everything in Banglaগেজেট রিভিউসিম্ফোনি আই১১০ স্মার্টফোন রিভিউ
Advertisements

বাংলাদেশের স্মার্টফোন মার্কেটে সিম্ফোনি তুমুল জনপ্রিয় একটি ব্র্যান্ড। এডিসন গ্রুপ গত ১২ই ফেব্রুয়ারী বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে এসেছে নতুন একটি স্মার্টফোন, সিম্ফোনি আই১১০, একটি বাজেট ফোন।

ফুল ভিশন ডিসেপ্লের LTE বাজেট ফোনে ব্যবহৃত হচ্ছে ১৮:৯ এ্যাসপেক্ট রেশিওর ডিসপ্লে। এটি ট্রেন্ডি ফুল ভিশন ডিসপ্লে বাজেট স্মার্ট ফোন। ফোনটি খুব হ্যান্ডি এবং বেশ মনোহর দেখতে। ক্যামেরা, পারফরমেন্স ও ওভারঅল ইউজার এক্সপেরিয়েন্স জানতে রিভিও এর শেষ পর্যন্ত চোখ বুলাতে হবে।

৫.৪৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে থাকার পরও ব্যবহারের সময় বেশ কম্প্যাক্ট মনে হয় ফোনটিকে। ৭+ অর্থাৎ ৭২০ x ১২৮০ রেজুলেশনের IPS ডিসপ্লে কালার রেনডিশন খুব ভাল। ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস ব্যবহার করা হলেও গ্লাসের প্রটেকশন সম্পর্কে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান খোলাশা কিছু জানাইনি। ফুল ভিশন বলা হলেও ফোনের উপরে ও নীচে গ্যাপ রয়েছে। ফোনের উপরে ক্যামেরা, এয়ারপিস ও ফ্রন্ট ফ্ল্যাস রয়েছে। সেলফি অন্ত:প্রাণ যুবক-যুবতীদের জন্য এটি একটি সুখবর।

ফোনটির পিছনে থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও ফ্ল্যাস। এছাড়াও, ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর চোখের পলকে ক্যামেরাকে আনলক করতে সক্ষম। আর, একদম নিচে থাকছে স্পিকার হাউজিং। এর অবস্থান গতানুগতিক অবস্থান থেকে একটু আলাদা। গ্রাহকরা স্পীকারের অবস্থান কিভাবে নিবেন তা দেখবার বিষয় হবে। ফোনের ব্যাককভার প্লাস্টিকের তৈরী এবং রিমুভেবল। কাভার খুললে আপনি এর ব্যাটারী, দু’টি সিম কার্ড ও এসডি কার্ডের স্লট দেখতে পাবেন। এসডি কার্ড সর্বোচ্চ ৬৪ জিবি পর্যন্ত সাপোর্ট দিবে।

সিম্ফোনি আই১১০ ইউজার ইন্টারফেস:

সিম্ফোনি আই১১০ (Symphony i110) এর ইউজার ইন্টারফেস বেশ ক্লিন। এ্যান্ড্রয়েড ৭ নুগ্যাট অপারেটিং সিস্টেম থাকছে এতে। সেই সাথে থাকছে স্প্লিট স্ক্রীন, স্মার্ট এ্যাকশন ও স্মার্ট জেসচার।

ডাবল ট্যাপ করে ফোন অন/অফ করার সুবিধা রয়েছে। এছাড়া, জেসচার দিয়ে ক্যামেরা বা মিউজিক প্লেয়ার অন করা যাবে। এরকম আরও কিছু ফিচার থাকলেও এর ইউজার ইন্টারফেস কিছু ল্যাগ করে। কারণ, ট্রান্সজিশন ইফেক্টে স্মুথনেস পাওয়া যায়নি। Symphony inova তে এর থেকেও ভাল পারফরমেন্স পাওয়া গিয়েছিল। মূলত: ফুলভিশন এইচডি রেজুলেশন এবং প্রাইস ট্যাগ মাথায় রেখে এই ল্যাগ সহ্য করা ছাড়া উপায় নেই।

এর ফিঙ্গার প্রিন্ট সেনসরটি বেশ দ্রুত কাজ করে। সেই সাথে রয়েছে ফেস আনলক ফিচার যেটিও ফাস্ট কাজ করে।

ব্যাটারী ব্যাকআপও বেশ সন্তোষজনক। কম-বেশ ব্যবহার করেও কিছু চার্জ থেকে যাবে ফোনটিতে। ২৯০০ মিলিএ্যাম্প ব্যাটারীতে ৫-৫.৩০ ঘণ্টার মত স্ক্রীন অনটাইম পাবেন। ইউটিউবে ৩০ মিনিটি এইচডি ভিডিও ব্যাকআপে ১২% পর্যন্ত ব্যাটারী খেয়ে নেয়।

১.৩ গিগাহার্জ ৬৪বিট কোয়াডকোর প্রসেসরবিশিষ্ট এই ফোনে গতানুগতিক প্রায় সব গেমই খেলা যায়। মিডিয়াটেক এমটি৬৭৩৭ গ্রাফিক্সকে প্রাণ দিয়েছে Mali-T720 চিপসেট। ২ জিবি র‌্যামের এই ফোনে রয়েছে ১৬ জিবি ইনবিল্ট স্টোরেজ। নতুন কেনার পর ফোনটিতে ৮ জিবির উপরে স্টোরেজ ফ্রি পাওয়া যায়। যাদের আরও স্টোরেজ দরকার পড়বে, তারা ৬৪ জিবি এসডি কার্ডের মাধ্যমে বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

শুরুর পরে ১ জিবির মত র‌্যাম ফ্রি পাওয়া যায়; কিছু এ্যাপ লোডের পর ল্যাগ করা শুরু করে। তবে গেম খেলার মধ্যে বিভিন্ন এ্যাপের নোটিফিকেশনে পারফরমেন্সের হেরফের লক্ষ্যনীয় নয়।

ছোট-খাট গেমে সিম্ফোনি আই১১০ ফোনের পারফরমেন্স খুবই ভাল। সেই সাথে সিটি রেসার, শ্যাডো ফাইট এর মত গেমও বেশ স্মুথ পারফরমেন্স দেখিয়েছে। হেভি গ্রাফিক্সে গেমে পারফরমেন্স আশানুরূপ নয়। এ্যাসফল্ট গেমটি খেলা যায়, কিন্তু গেম কন্ট্রোল তথৈবচ অবস্থা।

তবে, ফোনটির ক্যামেরাটির পারফরমেন্স ভাল; দিনে ও রাতে ভাল ছবি দিবে। ফোনটি মূল্য বিবেচনায় এর থেকে ভাল ক্যামেরা আশা করা বোকামি হবে। ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরায় আইম্যাক্সের সেন্সর এবং ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরায় অমনিভিশন সেন্সর। এইচডিআর, অমনিভিশন, ফেসবিউটি, নাইটমোড থাকছে সিম্ফোনি আই১১০ (Symphony i110) ফোনটিতে। নিউট্রাল কালার রেনডিশনযুক্ত এর ছবিগুলোতে পর্যাপ্ত কনট্রাস্ট রয়েছে, যাতে রাতে তোলা ছবিও চমৎকার মনে হয়। ফ্রন্ট ক্যামেরার সেলফি গুলোও চমৎকার কালারযুক্ত।

এছাড়াও, ৩০ ফ্রেম/সেকেন্ডে ভিডিও ক্যাপচার করার সুবিধা রয়েছে এই ফোনে।

ভারডিক্ট

সিম্ফোনি আই১১০ ফোনটি ওভারঅল পারফরমেন্স বিবেচনায় একটি ভাল অপশন হতে পারে। ক্যামেরা, ব্যাটারী ব্যাকআপ, গেমিং – সবগুলো সেক্টরেই এই ফোনের নান্দনিকতা ও পারফরমেন্স নজরকাড়া। এছাড়াও,ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার, ফেস আনলক, স্মার্ট জেসচার, স্মার্ট এ্যাকশন – ফিচারগুলো বেশ কাজের। ইউজার ইন্টারফেসে কিছু ল্যাগিং থাকায় কেউ যদি বেঁকে বসেন, তবে প্রাইস-পারফরমেন্স বিচারে একই মূল্যের বাকি ফোনগুলো থেকে সিম্ফোনি আই১১০ কে এগিয়ে রাখা যায় নি:সন্দেহে।

কৃতজ্ঞতা: Symphony i110 Review

এছাড়াও দেখুন:

ক্যাটাগরিঃ গেজেট রিভিউ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.